এক অপ্রতিরোধ্য ইংল্যান্ডকে দেখছে ক্রিকেট বিশ্ব 🏏🏏

avatar
(Edited)

ক্রিকেটের সৃষ্টিকর্তা ইংল্যান্ড। আধুনিক ক্রিকেটে পথচলা এই ইংল্যান্ডের হাত ধরেই। সময়ের পরিবর্তনে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় খেলা ক্রিকেট। কারো কারো কাছে ক্রিকেট এক আবেগের জায়গা৷ বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কার মতো এশিয়ার দেশগুলোতে ফুটবলের চাইতেও ক্রিকেটের চর্চা বেশি হয়। তবে ক্রিকেটের নাম আসলে ইংল্যান্ডের নামটিই সবার আগে আসবে।

ইংল্যান্ড একটি পরিপূর্ণ ক্রিকেট দেশের নাম। যারা ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই শক্তিশালী দল। আইসিসি কর্তৃক আয়োজিত সবগুলো টুর্নামেন্টেই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা। বহুদিন ধরে তাদের আক্ষেপ ছিল ওডিআই বিশ্বকাপ জয় করার। ২০১৯ সালে সেই আক্ষেপ কেউ পূরণ করেছে তারা। অবিশ্বাস্য এক ফাইনালে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে তাদের প্রথম ওডিয়াই বিশ্বকাপ শিরোপা জয়। তবে নিউজিল্যান্ড হেরেছে খেলায় নয়, ভাগ্যের কাছে।

ইংল্যান্ডের সাম্প্রতিক ফর্মের বিবেচনায় তাদের ধারেকাছেও নেই কোন দল। টেস্ট, ওডিআই এবং টি-টুয়েন্টি সব দিকেই তাদের জয়জয়কার। কোন দিকে দিয়েই তারা হার মানবার নয়।


FB_IMG_1657041776793.jpg
ENGLAND CRICKET

সম্প্রতি ক্রিকেটের ছোট দেশ নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে ওডিআই সিরিজে তারা গড়েছে এক ওডিয়াইতে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। নতুন নতুন রেকর্ড তৈরি করা রীতিমতো স্বাভাবিক ব্যাপার ইংল্যান্ডের জন্য। তারা নিজেরাই রেকর্ড গড়ে আবার নিজেরাই সেই ভাঙ্গে সেই রেকর্ড। সম্প্রতি তারা নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে গড়েছে এই অবিশ্বাস্য কীর্তি। তাদের করা পূর্ববর্তী ৪৮১ রানের পাহাড় সমান সংগ্রহ কে ছাপিয়ে এবার তারা করেছে ৪৯৮ রানের আরেক বিশাল সংগ্রহ। আর মাত্র ২ রানের জন্য ৫০০ রানের ম্যাজিক ফিগারটি ছুতে পারেনি তারা। ওডিআইতে তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী দলটির নামও এই ইংল্যান্ড।

সস্প্রতি সময়ে টেস্টে আরো দুর্দান্ত ইংল্যান্ড দল। গড়েছে নতুন কয়েকটি রেকর্ড। ঘরের মাটিতে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে এবার ইন্ডিয়া কেও হারিয়েছে রেকর্ড পরিমাণ রান চেজ করে। মাত্র ৭৮ ওভারে শেষদিনে এসে তারা ৩৭৮ রান তাড়া করে এই ম্যাচে ইন্ডিয়াকে হারিয়েছে। এটি ইংল্যান্ডের টেস্ট ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি রান তাড়া করে জয় রেকর্ড এবং টেস্ট ইতিহাসে যা অষ্টম সর্বোচ্চ।


FB_IMG_1657041909853.jpg
ENGLAND CRICKET

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রতিটি ম্যাচে ইংল্যান্ড ২০০+ রান তারা করে জিতেছে। হারতে বসা ম্যাচগুলোকেও বের করে নিয়ে এসেছে ব্যাটাররা। বিশেষ করে জনি বেয়ারেস্টোর ১২০+ স্ট্রাইক রেটে ব্যাটিং করা ছিলো ছিল চোখে পড়ার মতো। ইংল্যান্ড টানা চার ম্যাচে ২৫০+ রানের বেশি টার্গেট তাড়া করে জয় পেয়েছ, যা ইতিহাসে প্রথম।

ইংল্যান্ডের ব্যাটাদের সাম্প্রতিক ব্যাটিং দেখে মনেই হয়নি তারা টেস্ট ম্যাচে ব্যাটিং করছে। ওডিয়াই আর টি-টুয়ান্টি স্টাইলে ব্যাটিং করা রিতিমতো তাদের অভ্যাসে পরিনত হয়েছে। টেস্টে অধিনায়ক পরিবর্তনের পর ইংল্যান্ড যেনো থামতেই চাইছেনা। বেন স্টোক্সের অধিনাকত্তে জো রুট, জনি বেয়ারেস্টোরা অপ্রতিরোধ্য। কে ভেবেছিলো ইন্ডিয়া ১২০+ রানের লিড দিয়েও এই ম্যাচ হেরে বসবে? এজন্যই ক্রিকেট অনিশ্চয়তার খেলা এবং এটাই তার আসল সৌন্দর্য।



0
0
0.000
1 comments