অবশেষে নেইমার পিএসজিতেই থাকছেন

afp_fr_fe450de92272ff82cc84e4f19aa01324286256e4.jpg
IMG

সব জল্পনা কল্পনা উড়িয়ে দিয়ে অবশেষে নেইমার পিএসজি তেই থাকছেন। সাম্প্রতিক সময়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবর এসেছিলো এই মৌসুমের ট্রান্স পার উইন্ডো তে পিএসজি নেইমার কে ছেড়ে দিতে ছেয়েছিলো। এমন কি নেইমার কে কেনার জন্য অনেক গুলো ক্লাব যোগাযোগও নাকি করেছিলো। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে ছিল চেলসি। তাদের কর্তৃপক্ষ নাকি নেইমার কে কেনার জন্য অনেক ধরনের প্রস্তুতিই নিতে ছিলো।

এমনকি পিএসজি তাকে ৫০ মিলিয়ন ইউরো দিয়েও বিক্রি করে দিতে রাজি ছিলো সেসব খবরও ইউরোপীয়ানদের বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর রটে ছিলো। তবে বিক্রি করে দেওয়ার গুঞ্জন টা হয়তো সত্যিই ছিলো কেননা কয়েকদিন আগে পিএসজির জার্সি উন্মোচনের সময় পিএসজির প্রায় সব খেলোয়াড় থাকলেও ছিলেন শুধু নেইমার৷

অথচ সেই নেইমার কেই বার্সেলোনা থেকে ২২০ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে কিনে এনেছিলো পিএসজি। যা ছিলো ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে ব্যয়বহুল ট্রান্সপার। এবং তার জার্সি নাম্বার ছিলো টেন। অথচো সেই খেলোয়াড় টিই যখন ছিলো না জার্সি উন্মোচনে তখন যেন গুঞ্জন আরো বেড়ে গেছিলো৷ তবে সেটা গুঞ্জন নয় হয়তো সেটা বাস্তবেই হতে যাচ্ছিলো।

FB_IMG_1656958884516.jpg
IMG

কিন্তু নেইমার কে বিক্রি করে দিতে গিয়ে সবচেয়ে বড় বাঁধা হয়ে দাড়াই তার নতুন চুক্তি। কিছু দিন আগে নেইমার যখন পিএসজির সাথে চুক্তি করেছিলো তখন চুক্তি পত্রে সময় নির্ধারন করে দেওয়া হয়ে ছিলো যে, একটা নির্দিষ্ট সময় পর পিএসজি বা নেইমার যদি দল পরিবর্তন না করে তখন থেকেই তিনি অটোমেটিকলি ২০২৭ সাল পর্যন্ত পিএসজির খেলোয়াড় হয়ে যাবেন। আর এই সময় টা কয়েক দিন হলো পার হয়ে গেছে৷ সেই জন্যই নাকি নেইমার কে পিএসজি বিক্রি করতে পারেনি। এই মার পেচেই আটকে যায় নেইমারের দলবদল। আর এই খবর টাই ইউরোপীয়ান গণমাধ্যমে সবচেয়ে বেশি প্রচার হয়েছে।

তবে পিএসজি কি সত্যিই এত সব দামি তারকাদের ধরে রাখতে পারবেন? না অন্য কোনো বড় তারকা কে ছেড়ে দিবেন? বর্তমান সময়ে এই দলটিতে খেলছেন মেসি, নেইমার, এমবাপ্পে। এই তিনজনেই বর্তমান ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে বেতন আর বোনাস পাওয়া খেলোয়াড়। যা পিএসজির পক্ষে যোগান দেওয়া তাদের সামনে হয়তো বড় কাটা হয়েই দাড়াবে৷ তবে পিএসজি কর্তৃপক্ষ হয়তো বিকল্প কোনো উপায় বের করবেন। কিন্তু নেইমারকে যে আপাতত পিএসজি বিক্রি করতে পারতেছে না সেই খবর প্রায় নিশ্চিত।



0
0
0.000
0 comments